মাতাল

স্ত্রী শুনে বুঝুক

তাস খেলে, ড্রিংক করে আড্ডা দিয়ে ফিরতে অনেক রাত হয়ে গেল। খুব ভয়ে ভয়ে ফিরছিল রাশেদ। বাড়ির রাস্তায় এসে পড়ায় মৌলানা সাহেবের সঙ্গে দেখা। বাড়ির গেটে এসে রাশেদ তাকে একটু বসে যেতে অনুরোধ করল। তিনিও দাওয়াত খেয়ে ফিরছিলেন। একই রাস্তা বলে তিনি রাশেদের সঙ্গী হয়েছিলেন। অনেক রাত হয়ে গেছে বলে মৌলানা আপত্তি করলেন। রাশেদ কাতর …

স্ত্রী শুনে বুঝুক Read More »

বদরাগী গিন্নী

দুই মাতাল বসে বসে স্ত্রী সামলানো বিষয় নিয়ে গবেষণা করছে। প্রথম মাতাল – ভাই আজকে বাড়ি যেতে ভীষণ ভয় করছে। আমার গিন্নী একবার রাগলে আর রক্ষা নাই। দ্বিতীয় মাতালঃ আমার স্ত্রী তোমার স্ত্রীর মত নয়। এই দেখ না গিন্নী কালকে আমাকে হাতে পায়ে ধরে বিছানায় উঠিয়েছে। প্রথম মাতালঃ সত্যি ভাই তোমার স্ত্রীর ভাল বুদ্ধি আছে …

বদরাগী গিন্নী Read More »

গ্লাসগো শহর

গ্লাসগো শহরের রাস্তায় দু’জন স্কটিশ রাস্তা দিয়ে হাঁটছিল। একজনের নাম স্যান্ডি, আরেকজনের নাম ব্রাড। স্যান্ডি ভীষণ দুঃখের সঙ্গে বলল, দেখ ব্রাড, তোমার প্রতি আমার একটা অনুরোধ আছে। আমি গত তিরিশ বছর ধরে এক বোতল ওয়াইন আমার ঘরে লুকিয়ে রেখেছি। আমি যখন মারা যাব তখন তুমি বোতলের ওয়াইন টুকু আমার কবরের উপর ছিটিয়ে দিও। ব্রাড বলল, …

গ্লাসগো শহর Read More »

ওপরের ফ্ল্যাট

দুই মাতালকে পুলিশ আটকিয়েছে। – তোমার ঠিকানা বল। প্রথম মাতালকে জিঞ্জেস করল পুলিশ। – আমার কোন নির্দিষ্ট ঠিকানা নাই। – আর তোমার? দ্বিতীয় জনের দিকে ফিরল পুলিশ। – আমি ওর ওপরের ফ্ল্যাটের ঠিক ওপরের ফ্ল্যাটটায় থাকি।

তামাক থেকে দূরে থাকা

গড়গড়া দিয়ে তামাক টানছেন এক ভদ্রলোক। নলটা অনেক লম্বা। গড়গড়াটা এক কোণে আর ভদ্রলোক বসে আছেন ঘরের অন্য কোণে। এ সময় তার বন্ধু ঘরে ঢুকে বলল, কী ব্যাপার, সিগারেট ছেড়ে গড়গড়া টানছ কেন?আর নলটাই বা এত লম্বা কেন? ভদ্রলোক বললেন, ডাক্তার আমাকে টোব্যাকো থেকে দূরে থাকতে বলেছেন।

নাইট শো সিনেমা

নাইট শো সিনেমা দেখে বাড়ি ফিরছে এক লোক। এঠাৎ দেখল, তার আগে একটা মাতাল টলতে টলতে যাচ্ছে। তার একটা পা ফুটপাতের উপরে, একটা পা রাস্তায়। লোকটি এগিয়ে গিয়ে মাতালটাকে রাস্তায় নামিয়ে দিল। মাতাল তখন সোজা হয়ে হাঁটতে হাঁটতে বলল, আমি ভেবেছিলাম আমি বুঝি খোঁড়া হয়ে গেছি।

রোজ রাতে বারে যায়

দু বন্ধুর মধ্যে আলাপ হচ্ছে। – স্ত্রীর জন্য আমার মুখ দেখানোর আর কোন উপায় রইল না। রোজ রাতে সে বারে যায়। – ছিঃ ছিঃ ছিঃ কী জঘন্য কথা! কী করে বারে গিয়ে? – আমাকে টেনে হিঁচড়ে বাড়ি নিয়ে আসে।

সার্কাসের ভল্লুক

সার্কাসের ট্রেনার একটি ভল্লুক সঙ্গে নিয়ে একটি ‘বার’ এ ঢুকল। সেখানে মদে চুর হয়ে বসেছিল এক লোক। লাফ দিয়ে উঠে ভল্লুকটিকে জড়িয়ে ধরল সে। বলশালী ভল্লুক লোকটিকে শূণ্যে তুলে রাস্তায় ছুড়ে ফেলে দিল। লোকটি টলতে টলতে বলল, কোন কোন মহিলা একটা ফারকোট পেলেই দেমাগে আর মাটিতে পা পড়ে না।

লেকচার কে দিবে?

পুলিশ এক মাতাল কে ধরেছে। পুলিশঃ কোথায় যাচ্ছিস? মাতালঃ মদ খাওয়া যে ক্ষতিকর সে বিষয়ে লেকচার শুনতে যাচ্ছি। পুলিশঃ তা লেকচার কে দিবে? মাতালঃ আমার বউ।

ঠিকানা নেই

দুই মাতালকে পুলিশ আটকিয়েছে – তোমার ঠিকানা বলো। (প্রথম মাতালকে জিজ্ঞেস করলো পুলিশ।) – আমার কোন নির্দিষ্ট ঠিকানা নেই। – আর তোমার? দ্বিতীয়জনের দিকে ফিরলো পুলিশ। – আমি ওর ফ্ল্যাটের ঠিক ওপরের ফ্ল্যাটেটায় থাকি।