প্রেমিক-প্রেমিকা

প্রেমিক প্রেমিকার আড্ডা

প্রেমিক প্রেমিকা আড্ডা মারছে। প্রেমিকঃ আচ্ছা, তোমরা মেয়েরা একসঙ্গে হলে কী বিষয় নিয়ে গল্প কর? প্রেমিকাঃ কেন তোমরা ছেলেরা যা কর। প্রেমিকঃ তোমরা মেয়েরা এত অশ্লীল!

ভ্যালেন্টাইন ডে – ২

ছেলেঃ আজ ভ্যালেন্টাইন ডে, চল আজ আমরা অন্যরকম একটা কিছু করি। মেয়েঃ কী সেটা? ছেলেঃ ব্যাপারটা ‘চ’ দিয়ে। মেয়েঃ বেশ! তারপর চটাস করে একটা চড়ের শব্দ শোনা গেল।

ভ্যালেন্টাইন ডে – ১

মেয়েঃ আজ ভ্যালেন্টাইন ডে, চল আজ আমরা অন্যরকম কিছু একটা করি। ছেলেঃ কী সেটা? মেয়েঃ ব্যাপারটা ‘চ’ দিয়ে ছেলেঃ (খুশি) বেশ! তারপর তারা ফুলপ্লেটে চটপটি খেয়ে বাড়ি ফিরল।

ক্যালেণ্ডার দেখ

প্রেমিকাঃ আজকের এই ফেব্রুয়ারিতে যেমন ভালবাসছ, বছরের শেষেও তেমনি ভালবাসবে তো? প্রেমিকঃ নিশ্চয়ই। ফেব্রুয়ারির চেয়ে ডিসেম্বরে বেশি ভালবাসব। বিশ্বাস না হয় ক্যালেণ্ডার দেখ।

কাফনের খরচ

প্রেমিকঃ বাবাকে বল নি, আমাকে না পেলে তুমি বাঁচবে না? প্রেমিকাঃ বলেছি তো। প্রেমিকঃ তখন কী বললেন তোমার বাবা? প্রেমিকাঃ বলেছেন, “চিন্তা কোর না, কাফনের খরচ দিয়ে দেব”

প্রথম চিন্তা

– মিলি, এই মিলি? – কী? – জান, ভোরে উঠে সবার আগে আমার প্রথম চিন্তা জাগে তোমাকে ঘিরেই। – রাজনও তো আমাকে একই কথা বলে। – তাতে কী হয়েছে, আমি রাজনের চেয়ে আরো কত ভোরে উঠি!

দ্বিতীয়বার কষ্ট করতে পারব না

প্রেমিকঃ তুমি যখন আমাকে বিয়ে করবেই না, তাহলে চিঠিগুলো ফেরত দাও। প্রেমিকাঃ চিঠিগুলো আমি পুড়িয়ে ফেলব। প্রেমিকঃ না, না, ওগুলো লিখতে আমার অনেক কষ্ট হয়েছে। দ্বিতীয় বার আর কষ্ট করতে পারব না।

প্রচুর খাবারের অর্ডার

প্রেমিক-প্রেমিকা হোটেলে বসে খাচ্ছে। প্রচুর খাবারের অর্ডার দেওয়া হয়েছে। প্রেমিকঃ তা হলে তুমি আমাকে বিয়ে করবে না ঠিক করেছ? প্রেমিকাঃ হ্যাঁ, আমি তোমাকে বিয়ে করতে পারব না। প্রেমিকঃ এই বেয়ারা, আমাদের দু’জনের জন্য দুটি আলাদা বিল নিয়ে এস।